সম্রাট নেপোলিয়নের প্রেমের চিঠি। (King Nepoleon's love letter bangla)

নেপোলিয়নের_প্রেমের_চিঠি
Picture source: parismatch.com


সম্রাট নেপোলিয়নের চিঠি

পৃথিবীর সর্বশ্রেষ্ঠ বীরদের মধ্যে অন্যতম নেপোলিয়ন বোনাপার্টের জীবন নাটকীয় ঘটনায় পরিপূর্ণ। এত অস্ত্রশস্ত্র আর যুদ্ধ নিয়ে যার জীবন পরিপূর্ণ। তিনি যে একজন প্রেমিক হতে পারেন। তার যোদ্ধার হৃদয়েও যে প্রেমের স্থান থাকতে পারে সেটা ভাবতেই হয়তো আমাদের অবাক লাগে।

তার এই বীর হৃদয়ের অন্তরালে যে একজন প্রেমিক পুরুষ ছিল তার সন্ধান আমরা পাই তার প্রিয়তমা জোসেফাইন কে লেখা প্রেমপত্রগুলি পাঠ করে। প্রিয়তমার প্রতি যৌবনের যে আকর্ষণ তাকে আত্মহারা করেছিল, তার করুণ পরিণতি হয় পরস্পরের বিচ্ছেদের মাধ্যমে। হায়, বন্ধ্যা অপবাদে সম্রাট তাকে পরিত্যাগ করেন।

প্রেম পূর্ণ হৃদয়ে সম্রাট নেপোলিয়ন তার প্রিয়তমা কে অনেক চিঠি লিখেছেন। তার মধ্যে একটির বর্ণনা নিচে দেওয়া হলো।


জোসেফাইন কে লেখা চিঠি 

আমি আর তোমায় ভালোবাসি না। তুমি আজকাল ভারী দুষ্টু হয়েছো। তুমি খারাপ, তুমি যেন কি।

তুমি তোমার স্বামীকে ভালোবাসো না। তুমি তাকে চিঠি লেখ না।

ওগো তুমি তো জানো তোমার চিঠি পেলে আমার কত আনন্দ হয়। তোমার সুন্দর হাতের একটু লেখা পাওয়ার জন্য আমি কত আকুল আগ্রহে পথের দিকে চেয়ে থাকি। তা তো তুমি জানো। তবে কেন আমায় চিঠি দিতে এত দেরি করো।

সামান্য একটু হিজিবিজি কথাও তো এক কলম লিখতে পারো। পারো না প্রিয়ে। সারাদিন কি এমন কাজে ব্যস্ত থাকো যে আমায় তোমার সংবাদটুকু জানাবারও সময় পাওনা। কি এমন বাধা। তোমার কাছ থেকে বিদায় নিয়ে চলে আসার সময় তুমি প্রতিজ্ঞা করে বলেছিলে আমায় রোজই তোমার হাতের লেখা পাঠাবে। তুমি কি সে প্রতিজ্ঞা ভুলে গেছো?

বল, বল প্রিয়ে কে সে, যে তোমার আমার মধ্যে ব্যবধান সৃষ্টি করেছে? কোন ভাগ্যবান আজ তোমার কৃপালাপ করেছে? সে কি মর্তের মানব না কোনো অশরীরী? খায় হতভাগ্য আমি। কিন্তু আমি বলে রাখছি, আমি তা হতে দেবো না। একদিন দেখবে গভীর নিশীথে তোমরা যখন প্রেমালাপে মত্ত থাকবে, তখন হঠাৎ তোমার প্রমোদ কক্ষের দরজা ভেঙে তোমার কাছে গিয়ে দাঁড়াবো। কি রাগ করলে?

তোমার চিঠি না পেয়ে আমার মাথা ঠিক নেই। কি লিখতে কি লিখে ফেলেছি। আমায় ক্ষমা কর।

আমার মনের অবস্থা তো তুমি বুঝতে পারছ। পত্রপাঠ চিঠি দিও প্রিয়ে। এক, দুই, তিন, চার পাতা চিঠি চাই। একটুখানি ছোট্ট চিঠিতে এতদিনের ক্ষুধা মিটবে না। তোমার প্রেমের কথা, তোমার মধুমাখা প্রিয়তম সম্ভাষণ শোনার জন্য তৃষিত চাতকের মত হয়ে আছি। আর যে পারিনা প্রানেস্বরী।

কবে আবার তোমায় দু'বাহু দিয়ে আলিঙ্গন করে বুকের মাঝে নিয়ে অজস্র চুমায় তোমার মুখখানি রাঙিয়ে তুলবো! আশায় রইলাম। নিরাশ করোনা দেবী।

ইতি বোনাপার্ট।



আরো কিছু কথা


বেনারসি শাড়ির ইতিহাস ও বর্তমান


পান্নালাল ভট্টাচার্য্য র অকাল মৃত্যু ও অজানা তথ্য


গ্রামোফোন রেকর্ডে কুকুরের ছবির ইতিহাস


হেলেন মানেই অসাধারণ নাচ


রেলের টাইম কিপার থেকে সুপারস্টার কে এল সায়গল


পথের পাঁচালীর ইন্দির ঠাকুরণ সম্পর্কে অজানা তথ্য



নেপোলিয়ন কে লেখা চিঠি

তাদের বিচ্ছেদের পর জোসেফাইন একটি নির্জন পল্লীভবনে জীবনের বাকি দিনগুলো খুব সাধারণভাবে অতিবাহিত করেছেন। সে সময়ে তিনি তার প্রিয় মানুষটিকে চিঠি পাঠিয়েছেন, তার বর্ণনা এইরূপ।


চিঠি

আমাকে যে ভোলোনি তার জন্য তোমায় অসংখ্য ধন্যবাদ। এইমাত্র তোমার চিঠি পেলাম।

অনেকক্ষণ ধরে পড়লাম। এক একটি কথা পরি আর কাঁদি। চোখের জলে ভিজিয়ে দিই সব চিঠিখানা। তবুও ... তবুও এই পত্র মধুর। আবেগেই মানুষের জীবন ... এক একটি অনুভব আপনাতেই আপনি সম্পূর্ণ।

আমার ১৯ তারিখের চিঠি যে তুমি পাওনি তার জন্য আমি দুঃখিত। তাতে যে কি লিখেছিলাম তা আমার আজ মনে নেই। নেই সে মনের আকুলতা। সে ব্যগ্রতা আজও যেন আমাকে তোলপাড় করে তুলছে। হায় ওগো তোমার সংবাদ না পেলে আমার যে কি অবস্থা হয় তা আর কি বলবো।

ম্যালমেশন থেকে চলে আসবার পরই তোমায় পত্র দিয়েছিলাম। তারপর থেকে কতবার মনে হয়েছে তোমায় পত্র দিই, তোমার খবর নিই। কিন্তু পারিনি, পাছে তোমার মনে কষ্ট দিই।

তোমার নীরবতার কারণ আমি জানি। আর জানি বলেই তো তোমায় লিখিনি কোন চিঠি ভয়ে। পাছে আমার ধৃষ্টতায় তুমি মনে ব্যথা পাও। আমার যে কি বেদনা। তোমার চিঠিই আমার সে বেদনার প্রলেপ।

তুমি সুখী হও। কায়মনবাক্যে প্রার্থনা করি মানুষ যতখানি সুখী হতে পারে ততখানি সুখী হও। আমার যতটুকু প্রাপ্য ততটুকু সুখই তো তুমি আমায় দিয়েছো। তোমার চিঠি পেয়েছি এই আমার যথেষ্ট। তোমার মনের কোণে আমাকে যে একটু ঠাঁই দিয়েছো, আজও যে আমায় ভোলোনি, তাতেই আমার তৃপ্তি।

বিদায়, আজ বিদায় বন্ধু। তুমি আমার বড় আদরের। চিরদিন যেন তোমায় ভালবাসতে পারি।

ইতি জোসেফাইন


কিছু মধুময় প্রেমের কেন এমন করুণ পরিস্থিতি হয়, জানা নেই। এ বিষয়ে আপনি কি ভাবেন অবশ্যই জানাবেন কমেন্টের মাধ্যমে। ধন্যবাদ।

আজকের লেখাটি (সম্রাট নেপোলিয়নের প্রেমের চিঠি। King Nepoleon's love letter bangla) ভাল লাগলে কমেন্টে জানাতে পারেন। আমাদের মন জংশন ইউটিউব চ্যানেলে ঘুরে আসতে পারেন আরো পুরাতনী তথ্য জানার জন্য, ধন্যবাদ।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্যসমূহ