এইচএমভি গ্রামোফোন রেকর্ড এ কুকুরের ছবিটি কিভাবে এলো?

এইচএমভি_গ্রামোফোন_রেকর্ড_এর_কুকুর
Picture source : flikr.com


এইচএমভি গ্রামোফোন রেকর্ড এ কুকুর

পৃথিবীতে যত কোম্পানির লোগো দেখা যায়। তাদের মধ্যে অন্যতম আকর্ষণীয় ও নস্টালজিক এইচএমভি গ্রামোফোন কোম্পানির লোগো টি। যেখানে একটি কুকুরকে গ্রামোফোন শুনতে দেখা যায়।


কলের গান

যদিও আজ আর কেউ কলের গান শোনেন না। তবুও এই লোগোটি দেখলে সবাই বেশ নস্টালজিক হয়ে পড়েন। এই লোগোটির পেছনে একটি দারুন ইতিহাস আছে। বিশেষত লোগোটিতে যে কুকুরটিকে দেখা যায় সেটিকে নিয়ে একটি দারুন গল্প আছে। চলুন ফিরে যাই অতীতে।


নাম ছিল নীপার

কুকুরটির জন্ম হয় 1884 সালে ইংল্যান্ডের ব্রিস্টলে। কুকুরটির গায়ের রং ছিল সাদা। ছোটখাটো চেহারার বেশ সুন্দর দেখতে কুকুরটির নাম ছিল নীপার। তাকে নিপার নাম দেওয়া হয়েছিল কারণ সে প্রায়ই দর্শনার্থীদের পায়ের পিছনে "নিপ" করতো অর্থাৎ কামড়ে দিতো।

নিপার মূলত প্রিন্স থিয়েটারে তার মালিক মার্ক হেনরি ব্যারাউডের সাথে থাকতো। যেখানে ব্যারাউড ছিলেন একজন সিনারি ডিজাইনার। 1887 সালে যখন ব্যারাউড মারা যান, তখন তার ভাই ফিলিপ এবং ফ্রান্সিস কুকুরের দেখা শোনার দায়িত্ব নেন।


মারা যায়

নিপার 1895 সালে প্রাকৃতিক কারণে মারা যায়। ক্লারেন্স স্ট্রিটে এর ম্যাগনোলিয়া গাছ দ্বারা বেষ্টিত একটি ছোট পার্কে  নিপার কে কবর দেওয়া হয়।



আরো কিছু কথা


বেনারসি শাড়ির ইতিহাস ও বর্তমান


পান্নালাল ভট্টাচার্য্য র অকাল মৃত্যু ও অজানা তথ্য


গ্রামোফোন রেকর্ডে কুকুরের ছবির ইতিহাস


হেলেন মানেই অসাধারণ নাচ


রেলের টাইম কিপার থেকে সুপারস্টার কে এল সায়গল


পথের পাঁচালীর ইন্দির ঠাকুরণ সম্পর্কে অজানা তথ্য



ছবি আঁকেন

1898 সালে, নিপারের মৃত্যুর তিন বছর পর, ফ্রান্সিস বারাউড ফোনোগ্রাফ শুনতে থাকা নিপার এর একটি ছবি আঁকেন। এবারে ছবিটি নিয়ে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নিউ জার্সিতে অবস্থিত এডিসন-বেল কোম্পানির মালিকের সাথে দেখা করেন এবং ছবিটি দেখান। কিন্তু তিনি সেটি নিতে অস্বীকার করেন এবং বলেন কুকুর কখনো গান শোনে না।


গ্রামোফোন কোম্পানির প্রতিষ্ঠাতা

এই শুনে তিনি কিছুটা নিরাশ হয়ে পড়েন। তবে আবার তিনি ছবিটিকে বিক্রির উদ্দেশ্যে চলে যান গ্রামোফোন কোম্পানির প্রতিষ্ঠাতা উইলিয়াম ব্যারি ওয়েন এর কাছে। তিনি জানান যে শিল্পী যদি ফোনোগ্রাফ কে সরিয়ে বার্লিনারের ডিস্ক দিয়ে ছবিটি আঁকেন, তবে তিনি পেইন্টিং টি কিনবেন। ব্যারাউড তাই করেছিলেন এবং ছবিটি ভিক্টর এবং এইচএমভি রেকর্ড লেবেলে জায়গা করে নিলো। আর সাথে সাথে পৃথিবী বিখ্যাত একটি লোগো তে পরিণত হল।


কুকুরটি বিভ্রান্তের মতো

চিত্রটির নির্মাতা ফ্রান্সিস ব্যারাড কে জিজ্ঞাসা করা হলে তিনি বলেন - "এটা বলা মুশকিল যে আমার কাছে এই ধারণাটি কীভাবে এসেছিল। তবে যখনই এই যন্ত্রটি চলত কুকুরটি বিভ্রান্তের মতো শব্দটি শোনার চেষ্টা করত এবং বুঝার চেষ্টা করত শব্দটি কোথা থেকে তৈরি হচ্ছে। সম্ভবত এটা দেখেই আমার ইচ্ছে জেগেছিল। আর তার থেকে এই ছবিটির সৃষ্টি"।


বিক্রি করা হয়েছিল

পেইন্টিং সহ " হিজ মাস্টারের ভয়েস " স্লোগানটি দ্য গ্রামোফোন কোম্পানিকে £ 100 (১০০ পাউন্ড) দামে বিক্রি করা হয়েছিল।

নিপারের স্মরণে ১০ মার্চ ২০১০ সালে, এই পার্কটি সংলগ্ন একটি ছোট রাস্তার নামকরণ করা হয়েছিল নীপার অ্যালে।


আজকের লেখা টি ভাল লাগলে কমেন্টে জানাতে পারেন। এছাড়াও আমাদের ইউটিউব চ্যানেল মন জংশন এ ঘুরে আসতে পারেন আরো পুরাতনী তথ্য জানার জন্য, ধন্যবাদ।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্যসমূহ